বুধবার, ২৭ মে, ২০২০ ইং, ১৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
আজ বুধবার | ২৭ মে, ২০২০ ইং

জাজিরায় কৃষকের পাকা ধান কেটে দিল উপজেলা ছাত্রলীগ

বুধবার, ১৩ মে ২০২০ | ৩:০৮ অপরাহ্ণ | 161 বার

জাজিরায় কৃষকের পাকা ধান কেটে দিল উপজেলা ছাত্রলীগ

প্রতি বছর মৌসুমের শেষ সময়ে হাওরে হাওরে চলে বোরো ধান সংগ্রহের উৎসব। ধান উৎপাদনে কৃষকের মুখে ফুটে মিষ্টি হাসির ঝিলিক। সোনালী ধানের মিষ্টি গন্ধে মুখে তৃপ্তির হাসি নিয়ে কৃষক-কৃষাণিরা ধান কাটা, মাড়াই ঝাড়াই আর গো-খাদ্য খড় শুকানোর কাজে ব্যস্ত সময় পার করে থাকে। মাড়াই-ঝাড়াই শেষ হলে ধান শুকিয়ে গোলায় তুলতে কৃষাণিরা ওই ধান গোলায় আর বাড়ির উঠানে ছড়িয়ে রেখে শুকানোর কাজে ব্যস্ত থাকে। তাহলে এবারের দৃশ্য? করোনার থাবায় তাদের স্বপ্ন যেন লন্ড ভন্ড। মাঠে মাঠে পাকা ধান যখন কাটার সময় হয়েছে তখনই হানা দিয়েছে প্রাণ ঘাতি করোনা। এর প্রভাবে ধান কাটা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। জমিতে পাকা ধান থাকলেও ধান কাটার শ্রমিক মিলছে না। এ নিয়ে চিন্তিত প্রান্তিক কৃষক।

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় চলতি মৌসুমে বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। অনুক‚ল আবহাওয়া থাকায় দ্রæত সময়ে এখানকার কৃষকরা মাঠের পাকা ধান গোলায় তুলতে সীমাহীন ব্যস্ত সময় পার করার কথা, কিন্তু বাস্তব চিত্র পরিস্থিতির ঠিক বিপরীতে।

সরেজমিন দেখা গেছে, চারিদিকে সোনালী ফসলের আভা। মাঠজুড়ে সোনালী ফসল। চলমান করোনার প্রভাবে ব্যাপকভাবে শ্রমিক সঙ্কট দেখা দিয়েছে। টাকা দিয়েও শ্রমিক পাওয়া দুঃসাধ্য।

১২ মে মঙ্গবার সকাল থেকে জাজিরা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের অনুপ্রেরণায় হৃদয় আহমেদ শীষ এর উদ্যোগে জাজিরা উপজেলার কাজিরহাটের ডুবিসায়বরের প্রান্তিক কৃষক মো. রতন ফকিরের ৪৮ শতাংশ জমির পাকা ধান স্বেচ্ছাশ্রমে কেটে দেয় উপজেলা ছাত্রলীগ।

কৃষক মো. রতন ফকির বলেন, আমার জমির ধান গুলা পেকে যাওয়াতে শ্রমিক সংকটের জন্য বিপাকে পড়ে যাই। তখন ছাত্রলীগ সদস্যদের সাহায্যের সাড়া পাই। তারা রোজা রেখে সোনালী পাকা ধান কাটাসহ বাড়ির আঙ্গিনা পর্যন্ত পৌঁছে দেয়। আমি ছাত্রলীগের সহযোগিতার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য হৃদয় আহমেদ শীষ বলেন, দেশ জুড়ে লকডাউনে স্তব্ধ হয়ে গেছে মানুষের জীবনযাত্রা। কিন্তু স্তব্ধ হয়ে যাইনি প্রকৃতির নিয়ম। সবুজ আবরণ ভেদ করে সোনালী আলোয় মাঠে শোভা পাচ্ছে কৃষকের সোনালী ফসল ধান। ঘরে তুলতে হবে উক্ত ধান; কিন্তু শ্রমিক সংকট থাকায় কৃষকের হতাশা ঘুঁচাতে স্বেচ্ছাশ্রমে রোজা রেখে পাকা ধান কেটে দিতে আমাদের এই সহযোগিতা। তাই শ্রমিক সংকটে যাতে কৃষক তার ফসল তুলতে বাধাগ্রস্ত না হয় সেদিকটি বিবেচনা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, বি.এম. মোজাম্মেল হক এর নির্দেশনায় উদ্যোগ নিয়েছি আমরা উপজেলা ছাত্রলীগ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক কার্যকরী সদস্য হৃদয় আহমেদ শীষ, মো. মাহবুব মুন্সী (ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ), সিয়াম চৌকিদার, সাগর চৌকিদার, সিহাব মৃধা, লিখন বেপারী, শামিম মাদবর, নিরব বেপারী, আব্দুল্লাহ আল মাহবুব, আমির হোসেন, নাহিদ চোকদার, নাজমুল সরদার, সাজিদ মুন্সী, সেলিম সরদার, আরিফ চোকদার, শাকিল মোল্লা প্রমুখ।

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন
Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedInPrint this page

মন্তব্য

comments


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়