সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০ ইং, ১৬ চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
আজ সোমবার | ৩০ মার্চ, ২০২০ ইং

শরীয়তপুর সদরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মঞ্চনাটক “লালজমিন” অনুষ্ঠিত

সোমবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২০ | ৯:৩৯ পূর্বাহ্ণ | 41 বার

শরীয়তপুর সদরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মঞ্চনাটক “লালজমিন” অনুষ্ঠিত

সারাদেশের মতো শরীয়তপুর সদর উপজেলায় ২৬ জানুয়ারি রবিবার সন্ধায় শরীয়তপুর উপজেলা পরিষদের আয়োজনে উপজেলা অডিটোরিয়ামে মুক্তিযুদ্ধ ও যুদ্ধোত্তর বাংলাদেশে নারীর সংগ্রামী জীবন বিষয়ক মঞ্চনাটক “লালজমিন” অনুষ্ঠিত হয়। মোমেনা চৌধুরী অভিনীত এ নাটকটি রচনা করেন মান্নান হীরা। এছাড়া বিভিন্ন কুশীশব এ নাটক প্রকাশে সহযোগিতা করেন। এ মঞ্চনাটকটি দর্শক হিসেবে উপভোগ করেন, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মাহাবুর রহমান শেখ-এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) মো: মামুনুল হাসান, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গোসাইরহাট সার্কেল) মোহাইমিনুল ইসলাম, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা বিশিষ্ট সাংবাদিক আব্দুস সামাদ তালুকদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা জানে আলম, পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর মৃধাসহ সদর উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধাপ্রেমিকগণ।

উল্লেখ্য, “লাল জমিন” নাটকের গল্পে দেখা যায় ১৩ ডিঙিয়ে ছুই ছুই ১৪ বছরের কিশোরী কন্যার গল্প। কিশোরীর দু’চোখ জুড়ে মানিক বিলের আটক লাল পদ্মের জন্য প্রেম। তার কৈশরেই শোনে বাপ-মায়ের মধ্যরাতের গুঞ্জন। শুধু দু’টি শব্দ কিশোরীর মস্তকে আর মনে জেগে রয়, মুক্তি-স্বাধীনতা। ঐ বয়সে কিশোরী এক ছায়ার কাছ থেকে প্রেম পায়। বাবা যুদ্ধে চলে যায় অগোচরে কিশোরী নানা কৌশলে যুদ্ধে যাবার আয়োজন করে, সশস্ত্র যুদ্ধ। এবার কিশোরী সেই ছায়া- প্রেম সম্মুখে দাঁড়ায়ে, কিশোরী তার সেনাপতিকে চিনতে পারে। তারপর যুদ্ধযাত্রা… লক্ষ্যে পৌঁছার আগেই পুরুষ যুদ্ধারা কেউ শহীদ হন, কেউ নদীর জলে হারিয়ে যান। পাচ যুবতীসহ যুদ্ধযাত্রা এই কিশোরীর জীবনে ঘটে নানা অভিজ্ঞতা। ১৪ বছরের কিশোরীর ধবধবে সাদা জমিন যুদ্ধকালীন ৯ মাসে রক্তরাঙা হয়ে ওঠে। ‘লাল জমিন’ কিশোরীর রক্তরাঙা অভিজ্ঞতার মুক্তিযুদ্ধ ও যুদ্ধোত্তর এক নারীর সংগ্রামী জীবনের নাট্য প্রকাশ লালজমিন।

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন
Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedInPrint this page

মন্তব্য

comments


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়