বুধবার, ৮ এপ্রিল, ২০২০ ইং, ২৫ চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
আজ বুধবার | ৮ এপ্রিল, ২০২০ ইং

উচ্চশিক্ষার বিকাশে বিশেষ অবদানের জন্য ড. মো. এমরান পারভেজ খানের পদক লাভ

সোমবার, ১৪ মে ২০১৮ | ২:০৭ অপরাহ্ণ | 363 বার

উচ্চশিক্ষার বিকাশে বিশেষ অবদানের জন্য ড. মো. এমরান পারভেজ খানের পদক লাভ

জেড. এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান এবং মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. মো. এমরান পারভেজ খান সম্প্রতি শেরে বাংলা স্মৃতি পুরস্কার ২০১৮ এ ভূষিত হয়েছেন। পিছিয়ে পড়া অঞ্চলের উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে অনবদ্য অবদানের জন্য স্বদেশ বাংলা সাংস্কৃতিক ফাউন্ডেশন তাকে এ পুরস্কারে ভূষিত করে। গত ৯মে ২০১৮ ইং তারিখে ঢাকার প্রফেসর আখতার ইমাম অডিটোরিয়ামে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভা ও গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, অবসর প্রাপ্ত বিচারপতি মো. সামছুল হুদা, চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ গণতদন্ত কমিশন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, ভাষা সৈনিক রেজাউল করিম, প্রধান উপদেষ্টা, স্বদেশ বাংলা সাংস্কৃতিক ফাউন্ডেশন।
উল্লেখ্য ইতোপূর্বে মানবাধিকারের ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য ড. মো. এমরান পারভেজ খান এশিয়ান ইয়ুথ ফোরাম, জাপান কর্তৃক প্রদত্ত বর্ষসেরা মানবাধিকার পদক ২০১৭ লাভ করেন। এছাড়াও জেলা লিগ্যাল এইড কমিটি, শরীয়তপুর কর্তৃক জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস ২০১৮ এ বিশেষ সম্মাননায় ভূষিত হন।
ড. মো. এমরান পারভেজ খান জেড. এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। জেলার আইন শিক্ষায় তিনি যুগান্তকারী পরিবর্তন এনেছেন। শিক্ষার্থীদের প্রতি তার অবদান সর্বমহলে সুবিদিত। একাডেমিক শিক্ষার বাইরে নানান সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের সাথে তিনি জড়িত। তিনি ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর পিস এন্ড জাস্টিস এর উপদেষ্টা, ফাহিম-ফারবিন স্পোর্টিং ক্লাব এর প্রতিষ্ঠাতা, এসোসিয়েশন ফর সোসাইটিজ একচুয়াল ডেভেলপমেন্ট এর প্রেসিডেন্ট এবং সেন্টার ফর লিগ্যাল রিসার্চ এন্ড রিসোর্স এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। এছাড়াও তিনি একাডেমিক গবেষণায় যুক্ত। সম্প্রতি ইংরেজি ভাষায় রচিত তার আইন বিষয়ক দুটো বই “লজ অনপাবলিক ডিমান্ডস রিকভারি ইন বাংলাদেশ”এবং “বেসিকস অব ইন্টার প্রিটেশন অব স্ট্যাটিউটস ইন দ্য সাব কন্টিনেন্ট” প্রকাশিত হয়েছে। বিভিন্ন দেশি-বিদেশি জার্নালে তার গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।
ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত এবং দুই সন্তানের জনক। তার সহধর্মিনী মোছা. মরিয়ম-মুন-মঞ্জরী শরীয়তপুর জেলার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ। তার দুই সন্তান ফাহিম ও ফারবিন।

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন
Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedInPrint this page

মন্তব্য

comments


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়